রিকশাচালককে নির্যাতনকারী জানা গেল সেই সুলতানের পরিচয়

ঢাকা, ০৪ মে– ঢাকার বংশালে ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অফিসের সামনে এক রিকশাচালককে মারধরের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। এ ঘটনা পর মারধরকারী সুলতান আহমেদ নামের ওই ব্যক্তিকে মঙ্গলবার আটক করে পুলিশ।

বংশাল থানার ওসি মো. শাহীন ফকির গণমাধ্যমকে জানান, রিকশাচালককে নির্যাতনকারী মো. সুলতান আহমেদ পেশায় বাচ্চাদের বাইসাইকেলের ব্যবসায়ী। বংশাল এলাকায় তার প্রভাব আছে। ওই এলাকায় তাদের একটি চারতলা বাড়ি রয়েছে। সেখানে তারা পাঁচ ভাই থাকেন। সাইকেলের দোকান নেওয়ার আগে দীর্ঘ কয়েকবছর বংশালের পায়রা চত্বর এলাকায় ‘সুলতান টি’ নামে একটি দোকানে চা বিক্রি করতেন তিনি। স্থানীয় বাসিন্দা হওয়ায় নিজের প্রভাব খাটিয়ে সুলতান বিনা কারণে ওই রিকশাচালককে মারধর করেন।

তার বিরুদ্ধে মামলা হবে কি-না জানতে চাইলে তিনি জানান, এই বিষয়ে আমরা ঢাকা জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে কথা বলেছিলাম। তিনি জানান, ঘটনার সময় উপস্থিত থাকলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া যেত। এটি একটি অধর্তব্য (পুলিশ বিনা পরোয়ানায় গ্রেপ্তার করতে পারে না) অপরাধ। তবে আমরা ঘটনাস্থলে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করার চেষ্টা করছি। ওই রিকশাচালককে খুঁজে বের করে তার সঙ্গে কথা বলে দেখব, তিনি কোনও মামলা করতে বা অভিযোগ করতে চান কি না। তিনি অভিযোগ করতে চাইলে আমরা পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেব।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা যায়, প্রথমেই সুলতান আহমেদ ওই রিকশাচালককে থাপ্পড় মারেন। রিকশাচালক প্রতিবাদ করলে তিনি গালিগালাজ করেন। এক পর্যায়ে এলোপাথাড়ি থাপ্পড় মারতে থাকেন। এতে রিকশাচালক অজ্ঞান হয়ে পড়েন। সুলতান আহমদ টেনে-হিঁচড়ে তুলতে গেলে আশপাশের লোকজন এসে বাধা দেন।

সূত্র : আরটিভি
এম এন / ০৪ মে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *